1. eliusmorol@gmail.com : দিঘলিয়া ওয়েব ব্লগ : দিঘলিয়া ওয়েব ব্লগ
  2. rahadbd300@gmail.com : rahad :
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৩১ অপরাহ্ন

।।২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য ৬ লাখ ৭৭ হাজার ৮৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রাক্কলন করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়ঃ আগামী ০৯ জুন সংসদে বাজেট পেশ।।

মো: ইলিয়াস হোসেন
  • সর্বশেষ আপডেট: শুক্রবার, ৩ জুন, ২০২২
  • ২২৮ বার সংবাদ টি দেখা হয়েছে

আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য ৬ লাখ ৭৭ হাজার ৮৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রাক্কলন করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়। মোট বাজেটের ৪৫ শতাংশের বেশি বরাদ্দ রাখা হয়েছে মাত্র ১০টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের আওতাধীন খাতে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি বরাদ্দ পাচ্ছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। এরপরই আছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা থাকছে তৃতীয় অবস্থানে। তবে আগের বছরের তুলনায় বরাদ্দ সবচেয়ে বেশি বাড়ছে কৃষিতে।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, আগামী ৯ জুন (বৃহস্পতিবার) অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট সংসদে পেশ করবেন। এটি হবে অর্থমন্ত্রীর টানা চতুর্থ এবং বাংলাদেশ সরকারের ৫২তম বাজেট। এবার প্রস্তাবিত বাজেটে মোট রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৪ লাখ ৩৩ হাজার কোটি টাকা। চলতি ২০২০-২০২১ অর্থবছরের মূল বাজেটে মোট রাজস্ব আয়ের পরিমাণ ধরা হয়েছিল ৩ লাখ ৮৯ হাজার কোটি টাকা। ফলে আগের বাজেটের তুলনায় আগামী বাজেটে মোট রাজস্ব আয়ের লক্ষ্য বাড়ছে ৪৪ হাজার কোটি টাকা। যা গত বছরে ছিল ৩২ হাজার ৯৪১ কোটি ৯৮ লাখ টাকা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে ৩১ হাজার ৭৫৪ কোটি ২ লাখ টাকা। ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য এ মন্ত্রণালয়কে দেয়া হয় ২৬ হাজার ৩১৩ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। অর্থাৎ আগের বছরের তুলনায় ৫ হাজার কোটি টাকার বেশি বরাদ্দ পাচ্ছে তারা। স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে রাখা হচ্ছে ২৯ হাজার ২৮১ কোটি ৮১ লাখ টাকা। চলতি অর্থবছর এ জন্য রাখা হয় ২৫ হাজার ৯১৩ কোটি ৯৭ লাখ টাকা।

আগামী অর্থবছরের জন্য জননিরাপত্তা বিভাগ পাচ্ছে ২৪ হাজার ৫০৬ কোটি ৫ লাখ টাকা। চলতি অর্থবছর তারা পেয়েছিল ২৩ হাজার ৮২ কোটি ৭৩ লাখ টাকা। এবার আগের বছরের তুলনায় বিদ্যুত বিভাগকে কম অর্থ দেয়া হচ্ছে। প্রস্তাবিত বাজেটে এর জন্য ২৪ হাজার ১৯৫ কোটি ৮৮ লাখ টাকা প্রস্তাব করা হচ্ছে। চলতি বছর এ বিভাগের জন্য রাখা হয়েছিল ২৫ হাজার ৩৯৭ কোটি ৮৪ লাখ টাকা।

কৃষি মন্ত্রণালয় এবার বরাদ্দ পাচ্ছে ২৩ হাজার ২২৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা। চলতি বছর তার পরিমাণ ছিল ১৬ হাজার ২০১ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। সরকারের অগ্রাধিকার পাওয়া দশটি মন্ত্রণালয় বা বিভাগের মধ্যে বরাদ্দের বিচারে এবার আগের বছরের তুলনায় সবচেয়ে বেশি বাড়ছে কৃষি মন্ত্রণালয়েরই।

সর্বশেষে রেলপথ মন্ত্রণালয়কে ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য দেয়া হবে ১৮ হাজার ৮৫৩ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য রাখা হয়েছিল ১৭ হাজার ৫৪৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, বাংলাদেশের ২০২২-২৩ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট, আগামী ৯ জুন ২০২২ সংসদে পেশ করা হবে। জাতীয় বাজেটের আকার নির্ধারণ করা হয়েছে ছয় দশমিক ৭৭ ট্রিলিয়ন টাকা (৬ লাখ ৭৭ হাজার ৮৬৪ কোটি টাকা), যা মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ১৫ দশমিক চার শতাংশ।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য আমরা বাজেট তৈরি করছি। আগামী বাজেট সব শ্রেণির মানুষের জন্য প্রণয়ন করা হচ্ছে। নতুন বাজেটে কোনোভাবেই যেন জনগণের উপর চাপ না বাড়ে সে বিষয়টি লক্ষ্য রাখা হচ্ছে। বাজেটে দেশের জনগণের যেন ভোগান্তি না বাড়ে এবং তাদের ওপর বোঝা যেন বেশি না বাড়ে সেজন্য আমরা কাজ করছি। আশা করি সেগুলো কমবেশি অবশ্যই বিবেচনায় নেওয়া হবে। তাই অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোতে সবচেয়ে বেশি বরাদ্দ রাখা হচ্ছে।র্তমানে দেশে মন্ত্রণালয় ও বিভাগ রয়েছে ৫৮টি। তার মধ্যে ১০ মন্ত্রণালয় ও বিভাগ বছরওয়ারি সার্বিক ব্যয় বরাদ্দের হিসাবে অগ্রাধিকার পেয়ে আসছে। এগুলো হলো: স্থানীয় সরকার বিভাগ, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, শিক্ষা বিভাগ, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ, জননিরাপত্তা বিভাগ, বিদ্যুৎ বিভাগ, কৃষি মন্ত্রণালয় ও রেলপথ মন্ত্রণালয়।

বাজেট প্রণয়নে সংশ্লিষ্ট অর্থমন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এই বিরাট ব্যয়ের প্রায় অর্ধেক টাকাই যাচ্ছে সরকারের অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত এই মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোয়, যার পরিমাণ ৩ লাখ ৯ হাজার ৫১১ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। এটি বাজেটের মোট ব্যয়ের ৪৫ দশমিক ৬৬ শতাংশ।

বিদায়ী ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য এসব মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সার্বিক উন্নয়ন ও ব্যয়ভার নির্বাহে বরাদ্দ রাখা হয়েছে মোট ২ লাখ ৮০ হাজার ৭৯৩ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। এ হিসাবে আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরে এই ১০ মন্ত্রণালয়ের পেছনে বরাদ্দ বাড়ছে ১০ দশমিক ২৩ শতাংশ।

একটি নির্দিষ্ট বছরজুড়ে সরকারের আয় ও ব্যয়ের সামগ্রিক পরিকল্পনা হলো জাতীয় বাজেট। প্রতিবছর সরকার দেশের সার্বিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ডসহ রাষ্ট্রীয় ব্যয় নির্বাহে বছরের শুরুতে একটি ব্যয়ের আকার নির্ধারণ করে থাকে। সেই ধারাবাহিকতায় আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটে সরকারি ব্যয়ের সম্ভাব্য আকার ধরা হচ্ছে ৬ লাখ ৭৭ হাজার ৮৬৪ কোটি টাকা।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, ইতিমধ্যে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোর জন্য বিভিন্ন খাতের সার্বিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও সেসব প্রতিষ্ঠান পরিচালনায় আনুতোষিক ব্যয় বরাদ্দের হিসাব চূড়ান্ত হয়েছে।

প্রস্তাবিত বাজেটের আর্থিক ব্যয় বিবরণীর সংক্ষিপ্তসার অনুযায়ী, সরকারের অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত ১০ মন্ত্রণালয় ও বিভাগের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বরাদ্দ পাচ্ছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। গত অর্থবছরেও তারা বাজেট থেকে সর্বোচ্চ অর্থ নিয়েছে, যা ছিল ৩৯ হাজার ২১৯ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। স্থানীয় সরকারকে দেয়া হচ্ছে ৪১ হাজার ৭০৭ কোটি ৮০ লাখ টাকা। অগ্রাধিকারপ্রাপ্তদের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্থানে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। এর আওতাধীন সবকটি বিভাগের জন্য আসন্ন বাজেটে মোট ৪০ হাজার ৩০৪ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হচ্ছে। চলতি অর্থবছরের জন্য এ খাতে রাখা হয়েছিল ৩৭ হাজার ৬৯০ কোটি ৯৫ লাখ টাকা।

তৃতীয় সর্বোচ্চ অর্থ যাবে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগে। আগামী অর্থবছর এ মন্ত্রণালয় ও বিভাগের জন্য বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে ৩৯ হাজার ৮৬২ কোটি ২৯ লাখ টাকা। চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য এ বিভাগে রাখা হয়েছিল ৩৬ হাজার ৪৮৭ কোটি ২৪ লাখ টাকা।

প্রস্তাবিত বাজেটে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগকে রাখা হয়েছে ব্যয় বরাদ্দের চতুর্থ অবস্থানে। আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরের সার্বিক ব্যয়ভার নির্বাহে এই বিভাগ পাচ্ছে ৩৫ হাজার ৮২১ কোটি ৯৪ লাখ টাকা, যা আগের বছরে ছিল ৩২ হাজার ৯৪১ কোটি ৯৮ লাখ টাকা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে ৩১ হাজার ৭৫৪ কোটি ২ লাখ টাকা। ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য এ মন্ত্রণালয়কে দেয়া হয় ২৬ হাজার ৩১৩ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। অর্থাৎ আগের বছরের তুলনায় ৫ হাজার কোটি টাকার বেশি বরাদ্দ পাচ্ছে তারা। স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে রাখা হচ্ছে ২৯ হাজার ২৮১ কোটি ৮১ লাখ টাকা। চলতি অর্থবছর এ জন্য রাখা হয় ২৫ হাজার ৯১৩ কোটি ৯৭ লাখ টাকা।

আগামী অর্থবছরের জন্য জননিরাপত্তা বিভাগ পাচ্ছে ২৪ হাজার ৫০৬ কোটি ৫ লাখ টাকা। চলতি অর্থবছর তারা পেয়েছিল ২৩ হাজার ৮২ কোটি ৭৩ লাখ টাকা। এবার আগের বছরের তুলনায় বিদ্যুত বিভাগকে কম অর্থ দেয়া হচ্ছে। প্রস্তাবিত বাজেটে এর জন্য ২৪ হাজার ১৯৫ কোটি ৮৮ লাখ টাকা প্রস্তাব করা হচ্ছে। চলতি বছর এ বিভাগের জন্য রাখা হয়েছিল ২৫ হাজার ৩৯৭ কোটি ৮৪ লাখ টাকা।

কৃষি মন্ত্রণালয় এবার বরাদ্দ পাচ্ছে ২৩ হাজার ২২৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা। চলতি বছর তার পরিমাণ ছিল ১৬ হাজার ২০১ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। সরকারের অগ্রাধিকার পাওয়া দশটি মন্ত্রণালয় বা বিভাগের মধ্যে বরাদ্দের বিচারে এবার আগের বছরের তুলনায় সবচেয়ে বেশি বাড়ছে কৃষি মন্ত্রণালয়েরই।

সবশেষ রেলপথ মন্ত্রণালয়কে ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য দেয়া হবে ১৮ হাজার ৮৫৩ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য রাখা হয়েছিল ১৭ হাজার ৫৪৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, বাংলাদেশের ২০২২-২৩ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট, আগামী ৯ জুন ২০২২ সংসদে পেশ করা হবে। জাতীয় বাজেটের আকার নির্ধারণ করা হয়েছে ছয় দশমিক ৭৭ ট্রিলিয়ন টাকা (৬ লাখ ৭৭ হাজার ৮৬৪ কোটি টাকা), যা মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ১৫ দশমিক চার শতাংশ।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য আমরা বাজেট তৈরি করছি। আগামী বাজেট সব শ্রেণির মানুষের জন্য প্রণয়ন করা হচ্ছে। নতুন বাজেটে কোনোভাবেই যেন জনগণের উপর চাপ না বাড়ে সে বিষয়টি লক্ষ্য রাখা হচ্ছে। বাজেটে দেশের জনগণের যেন ভোগান্তি না বাড়ে এবং তাদের ওপর বোঝা যেন বেশি না বাড়ে সেজন্য আমরা কাজ করছি। আশা করি সেগুলো কমবেশি অবশ্যই বিবেচনায় নেওয়া হবে। তাই অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোতে সবচেয়ে বেশি বরাদ্দ রাখা হচ্ছে।

স্যোসিয়াল মিডিয়াতে শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর...