1. eliusmorol@gmail.com : দিঘলিয়া ওয়েব ব্লগ : দিঘলিয়া ওয়েব ব্লগ
  2. rahadbd300@gmail.com : rahad :
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:০৭ পূর্বাহ্ন

।।বড়লেখায় আতঙ্কিত নাম ছিনতাইকারী আলী হোসেন।।

মো: ইলিয়াস হোসেন
  • সর্বশেষ আপডেট: সোমবার, ২ মার্চ, ২০২০
  • ৪৬২ বার সংবাদ টি দেখা হয়েছে

।।বড়লেখায় আতঙ্কিত নাম ছিনতাই কারী আলী হোসেন।।

।।দিঘলিয়া ওয়েব ব্লগ অনলাইন ডেস্ক।।

সায়েম গতকাল ১লক্ষ টাকা আনতে খালার বাড়ি যায়। খালার বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে নিজ বাড়িতে ফেরার পথে জরুরি কাজে বন্ধুর সাথে দেখা করতে বড়লেখার পানিধার এলাকায় গাড়ি থেকে নেমে পড়ে সোনাতুলার সায়েম। আলাপ শেষে বন্দুকে বিদায় দিয়ে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করেছিলো। এমন সময় ছিগামহল গ্রামের #আলী_হোসেন পেছন থেকে এসে উপড়যোপুড়ি লাত্তি কিল ঘুষি মারতে থাকে। এবং আলী হুসেন বলতে থাকে গতদিন আমাকে তুমরা দাওয়া দিয়েছিলে কেনো? তর বাপ #সোয়েব (উপজেলা চেয়ারম্যান) ও #জুয়েল (সাবেক ছাত্রলীগ নেতা) কে দিয়ে কি করাতে চাইছিলে। তাদের দিয়ে কি আমার বাল ছেড়াতে পারছত?এসব বলে বলে মারতে থাকে। সায়েমের দুই পকেটে ৫০ হাজার টাকার দুটি বান্ডিলে একলক্ষ টাকা ছিলো। সেজন্য সায়েমের পকেট ফোলা দেখাচ্ছিল। পকেটে কি আছে বের কর বলে আলী হুসেন নিজেই পকেটে হাত দিয়ে দুই বান্ডিলের এক লক্ষটাকা ছিনিয়ে নেয়। এক পর্যায়ে আলী হুসেন পকেট থেকে ছুরি বের করে সায়েমের পিটে পোচ ও পাড় মেরে দেয়। সায়েমের চিতকার শুনে আশপাশের লোক তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে। পরে সায়েমের অন্য এক বড় ভাই এসে বড়লেখা সদর হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা করায়।

পরিবারের লোকজন এসে সেখান থেকে সায়েমকে নিয়ে যায়। তথ্য নিয়ে জানা যায় সন্ত্রাসী আলী হোসেন, ২০০০ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন।ছাত্রদলে থাকা কালিন ছিনতাই মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি। ছাত্রদলে থাকা কালিন কাঠালতলী বাজার থেকে মোটরসাইকেল চুরি করে পালিয়ে যায়, পরবর্তীতে চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল বিএনপি সমর্থিত ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম মামুন ও বিএনপি সমর্থিত মেম্বার নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে সিরাজুল ইসলামের বাড়িতে সমঝোতা চুক্তিতে চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল উদ্দার করা হয়। মোটরসাইকেল ছিনতাই চোর সিন্ডিকেটের গডফাদার আলী হোসেন ১/১১-এর পরবর্তী ক্ষমতার পালাবদলের পর সুযোগ বুঝে ঢুকে পড়েন যুবলীগের রাজনীতিতে।

প্রতিপক্ষের মামলা-হামলা থেকে রক্ষা পাওয়াসহ চলতে থাকে চুরিডাকাতি ছিনতাই। ২০১৭ সালে বড়লেখা উপজেলা যুবলীগের কমিটিতে সহ সম্পাদক পদ পেয়ে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে আলী হোসেন, ক্ষমতাসীন দলের প্রভাব খাটিয়ে জমি দখল, ডাকাতি, ছিনতাই, লুটপাট, চাঁদাবাজি, মোটরসাইকেল চুরি, আগর আত্তরের গাছ চুরিসহ সব ধরনের অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। পুলিশ এসল্ট মামলা সহ বিভিন্ন মামলার আসামি থাকা সত্তেয় প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে প্রকাশ্য দিবালোকে অসহায় মানুষদের হুমকি-দামকি দিয়ে কৃষি জমি থেকে অবৈদ ট্রাক্টর দিয়ে মাটি কাটা, অন্যায় অত্যাচার ও নির্যাতন অপকর্মের রাজত্ব আরও দিনকে দিন বেড়েই চলেছে এবং ছিগামল সুনাতুলা গ্রমের শান্তিপ্রিয় সাধারন মানুষদের চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। আলী হুসেন বর্তমানে ইয়াছিন আলী (সাবেক মেম্বার) ও সিরাজ (সদর ইউপি চেয়ারম্যান) এর ছত্রছায়ায় এসব্ কাজ করে বেড়াচ্ছে। আলী হুসেন বাহিনীর অন্যতম দুজন হচ্ছে সুনাতুলা গ্রামের আলিম উদ্দিন বড়লেখায় তার কাপড়ের দোকান আছে,এবং আতিক উদ্দিন মেঘনা লাইফ ইন্সুইরেন্স এ চাকরি করে। আলিম স্বার্থ হাসিলের জন্য জামাত ইসলাম থেকে যুবলীগে যোগ দিয়েছে। গত কয়েকমাস আগে সোনাতুলা পুলের মুখের ব্যবসায়ী এমাদ উদ্দিন ইউনুস কে পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেয় আলীম। আবার মোটা অংক টাকার বিনিময়ে থানা থেকে ছাড়িয়ে আনে।

এ যেনো সর্প হয়ে দঃশণ করে উজা হইয়া জাড়ে। এভাবেই আলী হুসেনের সাথে থেকে আলীম নিজের গ্রামের লোকদেরকে হয়রানি করতেছে। উল্লেখ্য গত ১৩ ফেব্রুয়ারিতে সুনাতুলায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের নামে মালিকানা যায়গার গরবাড়ি দোকান প্রচীর ভাংচুর করা হয়। এবং সেই ঘটনার মূল হোতাদের অন্যতম একজন ছিলো এই আলী হুসেন। সেজন্য আলী হুসেনের সাথে এলাকার মানুষের দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয় এলাকার অন্য কারো সাথে পেরে উঠতে না পারায় সায়েমকে একা পেয়ে মারধর করে টাকাও ছিনিয়ে নেয়।

স্যোসিয়াল মিডিয়াতে শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর...