1. eliusmorol@gmail.com : দিঘলিয়া ওয়েব ব্লগ : দিঘলিয়া ওয়েব ব্লগ
  2. rahadbd300@gmail.com : rahad :
রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:১৬ পূর্বাহ্ন

।।খুলনায় ঘনবসতি এলাকায় ইটভাটা নির্মাণের অভিযোগঃ হাইকোর্টে রিট আবেদন।।

মো: ইলিয়াস হোসেন
  • সর্বশেষ আপডেট: মঙ্গলবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৪১০ বার সংবাদ টি দেখা হয়েছে

।।খুলনায় ঘনবসতি এলাকায় ইটভাটা নির্মাণের অভিযোগঃ হাইকোর্টে রিট আবেদন।।
।।দিঘলিয়া ওয়েব ব্লগ অনলাইন ডেস্ক।।

খুলনার কয়রায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের কপোতাক্ষ নদের চর ভরাট ও কৃষকের জমি দখল করে ইটভাটা নির্মাণের কাজ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে ইটভাটা বন্ধের দাবিতে লালুয়া বাগালী গ্রামের বাসিন্দা অহিদুজ্জামান সরদার হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেছেন। এ ছাড়া এলাকার সাধারণ মানুষ ইটভাটা বন্ধে খুলনা পুলিশের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) ও বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছে।

অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার বাগালী গ্রামে অংশীদারের মাধ্যমে আজাদুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি আজাদ ব্রিকস নামে ওই ইটভাটা নির্মাণ করছেন। তাঁরা বাগালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ দুর্যোগকালীন আশ্রয়কেন্দ্র ও ঘনবসতি এলাকায় ভাটা স্থাপন করার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। অনুমোদনহীন এ ভাটার কারণে স্থানীয় পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়বে।
বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডকে ম্যানেজ করে আজাদুল ইসলাম সরকারি জায়গা ও কিছু ভূমিহীনের বন্দোবস্ত জায়গায় ইটভাটা নির্মাণ করছেন। এ ছাড়া ইটভাটার ৩০০ মিটারের মধ্যে দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে।

শহিদুল সরদার, আলমগীর, সাইফুল, লিটন, আরিফসহ বাগালী গ্রামের একাধিক বাসিন্দা জানান, ইটভাটায় সর্বক্ষণ গান-বাজনা, গাঁজার আসর বসিয়ে এলাকায় পরিবেশ নষ্ট করা হচ্ছে। বাইরের লোকজন ইটভাটার বাসায় থাকছে। সন্ধ্যার পর মুখোশধারী লোক গ্রামে ঢুকে হুমকি দিচ্ছে। তারা বলছে, ‘ভাটার বিরুদ্ধে কথা বললে মেরে লাশ নদীতে ভাসিয়ে দেব।’ অহিদুজ্জামান সরদার বলেন, “ইটভাটাটি চালু হলে এলাকায় কালো ধোঁয়ায় আছন্ন হবে। এতে স্কুলগামী দুটি প্রতিষ্ঠানের প্রায় সাত শতাধিক কোমলমতি শিশু ও পাশের আশ্রয়কেন্দ্রে বসবাসরত ৩০০ পরিবার ও গ্রামবাসী ক্ষতিগ্রস্ত হবে, যা জনস্বার্থবিরোধী। এ ঘটনায় হাইকোর্টে রিট পিটিশন (পিটিশন নম্বর ১৪৪৩০) করা হয়েছে। আমরা এ বিপদ থেকে মুক্তি চাই।”

স্যোসিয়াল মিডিয়াতে শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর...